সারাদেশ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পরিবর্তন নয়, বাতিলের দাবি বাসদের

  প্রতিনিধি ১৩ আগস্ট ২০২৩ , ৬:২৮:৩৭ প্রিন্ট সংস্করণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পরিবর্তনের নামে একই রকম নিবর্তনমূলক সাইবার সিকিউরিটি আইন প্রণয়ন হচ্ছে বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ নেতৃবৃন্দ। তারা সরকারের এই অশুভ চক্রান্তের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন।

আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে এই আহ্বান জানান তারা। বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক বজলুর রশীদ ফিরোজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য নিখিল দাস ও সদস্য জুলফিকার আলী।

জাতিসংঘসহ দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থা এই আইনটি বাতিলের দাবি জানিয়েছে উল্লেখ করে সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশি-বিদেশি নানামুখী চাপে পড়ে সরকার এই দমনমূলক আইনটি বাতিল না করে পরিবর্তনের মাধ্যমে কৌশলে একই ধরনের নিবর্তনমূলক সাইবার নিরাপত্তা আইন প্রণয়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৬০টি ধারার সবগুলোই নতুন সাইবার নিরাপত্তা আইনে থাকবে। শুধু অজামিনযোগ্য আটটি ধারা জামিনযোগ্য করা হয়েছে। কয়েকটি ক্ষেত্রে শাস্তির মাত্রা কিছুটা কমিয়ে জেল জরিমানার জায়গায় শুধু জরিমানা রাখা হয়েছে।

প্রস্তাবিত আইনের ২১ ও ২৮ ধারা দুটি মতো প্রকাশের স্বাধীনতার পরিপন্থী, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে হয়রানির হাতিয়ার বলেও উল্লেখ করেন তারা।

বর্তমান সরকার আবারো ক্ষমতায় আসার জন্য নানা ফন্দি-ফিকির করছে বলেও অভিযোগ করেন নেতারা। তারা বলেন, সরকারের পদত্যাগ, নির্দলীয় তদারকি সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে দেশের জনগণের যে লড়াই তাকে দমন করার জন্যই সাইবার সিকিউরিটি আইনটি করার চেষ্টা করছে। অতীতের স্বৈরশাসকদের মতোই নিজেদের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখা ও বিরোধীমতকে দমন করার কাজে ব্যবহৃত হবে।

নেতৃবৃন্দ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ সব নিবর্তনমূলক কানাকানগুলো বাতিল ও একই ধরনের দমনমূলক সাইবার নিরাপত্তা আইন করার সরকারের চক্রান্তের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য সকল প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল, সংগঠন ও জনগণের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

আরও খবর

Sponsered content