সারাদেশ

প্রেমিক বিদেশ, বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে ১৫ বছরের কিশোরীর অবস্থান

  প্রতিনিধি ১৩ মে ২০২৩ , ৩:২৭:১১ প্রিন্ট সংস্করণ

সালথা-নগরকান্দা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি:

দেড় বছর ধরে বিদেশে অবস্থান করছেন মো. আজাদ মৃধা (২২) নামে এক যুবক। অথচ বিয়ের দাবিতে তার বাড়িতে ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরী অবস্থান নিয়েছে। ওই কিশোরীর দাবি, আজাদের সাথে তার ৩ বছরের প্রেম সম্পর্ক। বর্তমানে তাদের প্রেম সম্পর্কে ভাটা পড়ায় তিনি ওই বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন। 

ঘটনাটি ঘটেছে ফরিদপুরের সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের দরগা গট্টি গ্রামে। প্রেমিক আজাদ দরগা গট্টি গ্রামের আইয়ুব মৃধার ছেলে। আর প্রেমিকা রহিমা আক্তার (১৫) পার্শ্ববর্তী সিংহপ্রতাপ গ্রামের আব্দুর রশিদ শেখের মেয়ে। শুক্রবার (১২ মে) দুপুর ১২টা থেকে কিশোরী রহিমা বিয়ের দাবিতে আজাদের বাড়িতে অবস্থান শুরু করে। রাত ১০ টা পর্যন্ত ওই বাড়িতেই অবস্থান করছে বলে জানা গেছে।

কিশোরী রহিমা অভিযোগ করে বলেন, রং নাম্বারে আজাদের সঙ্গে আমার পরিচয় হয়। প্রথমে মোবাইলের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরে মাঝে মধ্যেই দেখা করি। একপর্যায় আমাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে উঠে। এতে আমার পেটে বাচ্চা আসে। বিষয়টি আজাদকে জানালে তিনি বাচ্চা নষ্ট করে দেওয়ার পরামর্শ দেয়। তার কথা মতো বাচ্চা নষ্ট করে দেই। যা উভয় পরিবারই জানতো। 

তিনি আরও বলেন, আজাদ গত দেড় বছর আগে আজাদ সৌদি আরব আমিরাতে চলে যায়। তিনি বিদেশ থেকে এসে আমাকে বিয়ে করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু গত চার মাস ধরে আজাদ আমার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে। তাই আজকে বাধ্য হয়ে বিয়ের দাবিতে আমি আজাদের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছি।

তবে আজাদের বাবা মো. আইয়ুব মৃধার বলেন, আমার ছেলে দেশের বাইরে রয়েছে। এসব বিষয়ে ছেলে কিছুই জানায়নি। ওই মেয়ে আমার বাড়িতে আসার পর আমি আমার ছেলের সাথে ফোনে কথা বলেছি। আমার ছেলে জানিয়েছে ওই মেয়ের সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে স্থানীয় ইউপি সদস্য মনির মোল্যা বলেন, বিয়ের দাবিতে একটি মেয়ে আজাদের ছেলের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে বলে জানতে পেরেছি। তবে ছেলেটা বিদেশে থাকে।

আরও খবর

Sponsered content