সারাদেশ

ভোলায় ফড়িং ধরে দেওয়ার কথা বলে শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা, চাচা গ্রেফতার

  ভোলা প্রতিনিধি ৬ জুন ২০২৩ , ১১:৫১:০১ প্রিন্ট সংস্করণ

ভোলা প্রতিনিধি: ভোলায় ঘাসফড়িং ধরিয়ে দেয়ার কথা বলে ফুসলিয়ে বাগানের মধ্যে নিয়ে ৭ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে দূরসম্পর্কের এক চাচার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই শিশুর মায়ের দায়ের করা মামলায় মো. হানিফ ওরফে হানু (৫০) নামে এক লম্পটকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৬ জুন) সকালে পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে। এর আগে সোমবার ৫ জুন দুপুরে সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের ধনিয়া গ্রামের গোডাউন নামক জায়গায় এ ঘটনা ঘটে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহীন ফকির প্রতিদিনের বাংলাদেশকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। অভিযুক্ত হানিফ ওই গ্রামের মৃত সুলতান আহমেদের ছেলে। ভুক্তভোগী শিশু একই গ্রামের বাসিন্দা। শিশুটি স্থানীয় একটি কিন্ডারগার্টেনের ১ম শ্রেণিতে পড়াশোনা করে। হানিফ শিশুটির দূরসম্পর্কের চাচা হয়। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে শিশুটিকে স্কুলে পাঠিয়ে দেয় তার মা। তাদের এক নিকটাত্মীয় মারা গেলে সেই বাড়িতে যান ওই শিশুর মা। দুপুর ১টার দিকে শিশুটি স্কুল থেকে ফিরে বাড়িতে গিয়ে তার বাবাকে খুঁজতে বের হয়। একপর্যায়ে হানিফ শিশুটিকে কলাগাছের থোর ও ঘাসফড়িং ধরিয়ে দেওয়ার কথা বলে ফুঁসলিয়ে জনৈক সেলিম পাটোয়ারীর বাগানের মধ্যে নিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করে।  এসময় স্থানীয় এক কলেজছাত্রী কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে এ দৃশ্য দেখতে পায়। ওই কলেজছাত্রীকে দেখে হানিফ শিশুটিকে রেখে পালিয়ে যায়। পরে কলেজছাত্রীর সহযোগিতায় শিশুটির পরিবার শিশুটিকে উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। বর্তমানে শিশুটি ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

আরও খবর

Sponsered content