অনশন

ভোলার মনপুরায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

  প্রতিনিধি ২০ জুন ২০২৩ , ১১:৩৯:৩৩ প্রিন্ট সংস্করণ

মনপুরা প্রতিনিধি:

ভোলার মনপুরা বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন শুরু করেছেন নবম শ্রেণির এক ছাত্রী। মঙ্গলবার (২০ জুন) সকাল ১১টায় দক্ষিণ সাকুচিয়া রহমানপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে।বিষয়টি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে শত শত মানুষ ঘটনাস্থলে ভিড় জমিয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে প্রেমিক যুবক পলাতক রয়েছেন।

জানা গেছে, উপজেলা দক্ষিণ সাকুচিয়া রহমানপুর গ্রামের মুনাফ আলীর মোল্লার ছেলে মো. মনোয়র হোসেনের (২৫) সাথে পাশের উপজেলা চরফ্যাশন আসলামপুর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আলতাফ হোসেনের মেয়ে ও হামিদপুর হামিদিয়া দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রীর ২ বছরের প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। গত সোমবার জানতে পারেন প্রেমিক মনোয়ার অন্যত্র বিয়ে করছেন। তাই প্রেমিকা মঙ্গলবার চরফ্যাশন বেতুয়া থেকে স্পীডবোটযোগে মনপুরার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নে ৭ নং ওয়ার্ডে প্রেমিকার বাড়িতে অবস্থান করছে। বিয়ে না করে যাবেন না তিনি। তাছাড়াও তার প্রেমিক তাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকিও দেন ওই তরুণী।

ওই তরুণী (শিক্ষার্থী) জানান, রং নাম্বারে মুঠোফোনে পরিচয়ের পর গত দুই বছর ধরে প্রেমিক মনোয়ার হোসেন এর সাথে তার প্রেমের সর্ম্পক। এরপর থেকে প্রেমিকের সাথে চরফ্যাশনের খামার বাড়ি সহ বিভিন্ন জায়গায় একসাথে ছিল। বিয়ের আশ্বাসে তাকে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে নিয়ে গিয়ে একসাথে ছিল বলে জানায়। প্রমাণ হিসাবে তাদের একসাথের অনেক ছবি দেখান। বিয়ে না করা পর্যন্ত প্রেমিকের বাড়িতেই তিনি অবস্থান করবেন বলে জানান। 

এদিকে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অনশন চলছিল। এই ব্যাপারে প্রেমিক মনোয়ার হোসেন পলাতক থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে ব্যবহৃত মুঠোফোনে রিং দেওয়ার পর মুঠোফোনটি বন্ধ রেখেছে প্রেমিক। এছাড়াও প্রেমিকের অভিভাবকরাও কিছু বলতে রাজি হয়নি।

মনপুরা উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউপি চেয়ারম্যান অলি উল্লা কাজল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, উভয় পক্ষ আসলে তাদের কথা শুনে কি করা যায় সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

এই ব্যাপারে মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ জহিরুল ইসলাম জানান, বিষয়টি শুনেছি। বিষয়টি দেখভালের জন্য পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।

আরও খবর

Sponsered content