সারাদেশ

মাকে কুপিয়ে লাশের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন ছেলে

  প্রতিনিধি ২৩ জুন ২০২৩ , ৪:৩৮:১৫ প্রিন্ট সংস্করণ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ঘড়িষার ইউনিয়নে মাকে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ উঠেছে ছেলের বিরুদ্ধে। ইতোমধ্যে অভিযুক্ত ছেলেকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২২ জনু) নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। বুধবার (২১ জুন) রাতে ওই ইউনিয়নের বাহির কুশিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তি উপজেলার ঘড়িষার ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ব্যবসায়ী সেলিম মাঝির স্ত্রী নার্গিস বেগম (৪০)। আটককৃত ব্যক্তি নিহতের ছেলে জাহিদ মাঝি (২৫)

পুলিশ জানায়, সেলিম ঘড়িষার বাজারের হাজী জালালউদ্দিন মার্কেটের মালিক। সেলিম-নার্গিস দম্পতির তিন ছেলে-মেয়ে। জাহিদ সবার ছোট। বুধবার বিকেলে বিয়ের দাওয়াত খেয়ে সেলিম-নার্গিস বাড়িতে আসেন। এ সময় স্ত্রী ও ছেলে জাহিদকে বাড়িতে রেখে সেলিম দোকানে চলে যান।

এদিকে সন্ধ্যার পর সেলিম ও শাহিন ঘরের দরজা বন্ধ দেখে ফাঁক দিয়ে নার্গিসকে রক্তাক্ত অবস্থায় মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেন। এ সময় পাশে দা নিয়ে জাহিদ দাঁড়িয়ে ছিল। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

নিহতের স্বামী সেলিম জানান, আমার ছেলে জাহিদ মানসিক ভারসাম্যহীন। আমার সংসারের লক্ষ্মীকে খুন করেছে।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, বুধবার রাতে খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়রা অভিযুক্তকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে।

আরও খবর

Sponsered content